ঢাকার উত্তরায় ব্যবসায়ীর কাছে ৩০ লাখ টাকা চাঁদা চেয়ে প্রাণনাশের হুমকি


হাবিবুর রহমান, ঢাকা: ঢাকার উত্তরায় ব্যবসায়ী তানভীর হোসেনের কাছে দাগী সন্ত্রাসীরা চিঠি পাঠিয়ে ৩০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেছে। এই ব্যাপারে উত্তরা পশ্চিম থানায় দুইটি জিডি করা হয়েছে। বর্তমানে ব্যবসায়ী তানভীর হোসেন ও তার পরিবারের লোকজন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। সন্ত্রাসীরা পর পর দুইটি চিঠি পাঠিয়ে ৩০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেছে। দাবীকৃত চাঁদা না দিলে ব্যবসায়ী তানভীর হোসেন ও তার ২ ছেলেসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের হত্যার হুমকি দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। সন্ত্রাসীরা যে চিঠি প্রথমে পাঠিয়েছে তা পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।
তানভীর সাহেব চিঠিটা খুব ভালোভাবে পড়বেন। কারণ আপনাকে আমরা খুব ভালো করে চিনি, যদিও আপনি আমাদের চিনেন না। কিন্তু আমরা আপনার ভালো চাই। আপনি একজন ব্যবসায়ী, আপনার এয়ারপোর্টে ব্যবসা আছে, যেখানে আপনি অনেক টাকার ব্যবসা করেন। তাছাড়া উত্তরায় আপনার একটা বাড়ী আছে। সেখানে থেকেও আপনি অনেক টাকা ইনকাম করেন।আপনার স্ত্রী ও দুই ছেলে সন্তান রয়েছে। আপনার বড় ছেলে একটা ইংলিশ স্কুলে পড়ে। এখন বুঝতে পারছেন আমরা আপনাকে কতটা চিনি। আজকাল কত বাচ্চা কতভাবে হারিয়ে যায়, আর একবার হারালে টাকা তো যাবেই সাথে বাচ্চাও আর ফেরত পাওয়া যায় না। ভবিষ্যতে যাতে আপনার এই জাতীয় কোন সমস্যা না হয় আমরা আপনার সেই খেয়াল রাখার জন্য আপনাকেও আমাদের জন্য কিছু করবার দরকার বলে মনে করি। সময় মতো সেটা আপনাকে জানানো হবে। তবে আপনার নিজস্ব ভালোর জন্য পুলিশকে কিংবা অন্য কাউকে জানাবেন না। তা নাহলে আপনার কিংবা আপনার পরিবারের কারো ক্ষতি হলে আপনি নিজেই দায়ী থাকবেন। আর কখন কোথায় কি করতে হবে তা সময় মতো জানাবো। আবারো বলছি পুলিশের কাছে গেলে আপনার অনেক বড় ক্ষতি হবে। এই সামন্য কিছু টাকা আপনার জন্য কিছুই না। এটা আপনি খুব সহজেই দিতে পারবেন। মনে রাখবেন আমরা আপনার ব্যবসা আর বাড়ীঘর সবকিছুই চিনি। ধরেন, আপনার উপকার করার বদলে আপনিও আমাদের একটু উপকার করলেন। কারণ আমাদের পোলাপান চালাইতে টাকার প্রয়োজন। আশা করছি বুঝতে পারছেন। এই চিঠি পাওয়ার পর আরো একটি চিঠি দেয় সন্ত্রাসীরা। ওই চিঠি থেকে আরো জানা গেছে। ওই চিঠিটি পাঠকদের উদ্দেশ্যে তুলে ধরা হলো: তানভীর সাহেব মনে হয় আপনি আমাদের ব্যাপারে জানতে পারছেন। আপনাকে তো বলেছি যে, আমাদের পোলাপাইন চালাইতে অনেক টাকা লাগে। তাই আমরা ঠিক করছি যে আপনে আমাদেরকে ৩০ লাখ টাকা দিবেন। এই টাকাটা আপনে রেডি রাখবেন। আপনারে আমরা ফোন দিবো। কিন্তু মনে রাখবেন পুলিশরে জানাইলে আপনারে কেউ বাঁচাতে পারবেনা। কারণ পুলিশ আপনার বউ-বাচ্চারে সব সময় পাহারা দিব না। আর এর পরও যদি যান তাহলে সাথে কাফনের কাপড়ও কিনে রাখবেন। আপনারই কাজে লাগবে। আপনার জন্য এই সামন্য টাকা কিছু না সেইটা আমরা খুব ভাল জানি। আশা করি বুঝতে পারছেন। উক্ত ঘটনায় উত্তরা পশ্চিম থানায় গত ২০-০৭-২০১৯ ইং তারিখে তানভীর হোসেন বাদী হয়ে একটি জিডি করেন। জিডি নম্বর হচ্ছে ৩৪৫। এর পর আরো একটি জিডি করেন ব্যবসায়ী তানভীর হোসেন। জিডি নম্বর হচ্ছে ১৩৭২। উক্ত ঘটনায় পুলিশ কোন সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার বা আটক করতে পারেনি। বর্তমানে ব্যবসায়ী তানভীর হোসেন ও তার পরিবারের সদস্যরা জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *