‘পদ্মাবত’ নিয়ে দেশের পরিস্থিতি ঠিক এখন কেমন রয়েছে ? পড়ুন …

হুমকিকে উপেক্ষা করে অবশেষে গোটা দেশ জুড়ে মুক্তি পেল ‘পদ্মাবত’। সঞ্জয় লীলা বনশালির সিনেমার মুক্তি নিয়ে ইতিমধ্যেই উত্তাল হয়েছে দেশের উত্তর-পশ্চিম অঞ্চল। পদ্মাবত নিয়ে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হলে, তা দেখার দায়িত্ব রাজ্যের বলে জানিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। তবু হিংসাত্মক বিক্ষোভের ছবি দেশের বিভিন্ন অংশে।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই রাজস্থানের জয়পুর, উদয়পুর-সহ একাধিক জায়গায় বিক্ষোভ শুরু করে কারনি সেনা। তলোয়ার নিয়ে রাস্তায় নামতে দেখা যায় ওই সংগঠনের সদস্যদের। সেই সঙ্গে বাইক মিছিল করেও সঞ্জয় লীলা বনশালির সিনেমার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে বেশ কিছু সংগঠন। উদয়পুরে বেশ কিছু দোকানও ভাংচুরও করা হয়েছে বলে খবর। পাশাপাশি, এই সিনেমা নিয়ে চিতরগড়েও বিক্ষোভ শুরু করেছে রাজপুত কারনি সেনা।

বিক্ষোভের আঁচ থেকে বাদ পড়েনি বিহার। পশ্চিমবঙ্গের প্রতিবেশী রাজ্যের মুজাফফরপুর জেলায় বিক্ষোভ শুরু করেন বেশ কিছু মানুষ। পদ্মাবত নিয়ে বিক্ষোভ শুরু হয় ফরিদাবাদেও। সঞ্জয় লীলা বনশালি এবং দীপিকা পাডুকনের কুশপুতুলও দাহ করা হয় সেখানে। মুম্বই এবং পুনের বেশ কিছু জায়গাতেও পদ্মাবত নিয় বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। এদিন সঞ্জয় লীলা বনশালির বাড়ির সামনে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *